1. ashraful.shanto@gmail.com : Ashraful Talukder : Ashraful Talukder
  2. newstalukder@gmail.com : Alamgir Talukder : Alamgir Talukder
শনিবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২১, ১০:৩৭ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
কচুয়ায় উৎসবমূখর পরিবেশে ইউপি নির্বাচনের মনোনয়নপত্র সংগ্রহ ও দাখিল চেয়ারম্যান পদে ৫৮ ও মেম্বার পদে ৫শত ১৫ জনের মনোনয়নপত্র সংগ্রহ কচুয়ায় পুকুর থেকে রিক্সাচালকের ভাসমান লাশ উদ্ধার কচুয়ার কড়ইয়া ইউনিয়নের তৃনমূলের প্রার্থী নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী আবদুস ছালাম সওদাগরের ব্যাপক গনসংযোগ ১৬মাস ১০ দিন পর কচুয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো: শাহজাহান পুনর্বহাল কচুয়ার নলুয়ায় ডক্টর মহীউদ্দীন খান আলমগীর এমপির বিভিন্ন উন্নয়ন কাজের উদ্বোধন কচুয়া উত্তর ইউনিয়নে ড.মহীউদ্দীন খন আলমগীর এমপি’র বিভিন্ন উন্নয়ন কাজের উদ্বোধন কচুয়ার শেখ মুজিবুর রহমান ডিগ্রি কলেজ এই অঞ্চলের শ্রেষ্ঠ বাতিঘর: ড.মহীউদ্দীন খন আলমগীর এমপি কচুয়ায় ড. মুনতাসীর মামুন ফাতেমা ট্রাস্টের অস্বচ্ছল পরিবারের মাঝে ভ্যান গাড়ি বিতরণ কচুয়ার দুর্গাপুরে ইউপি সদস্যের নির্বাচনী প্রচারনায় হামলা ॥আহত ৪ কচুয়ায় আল-জামিয়াতুল ইসলামিয়া দারুস সুন্নাহ মাদ্রাসার নতুন ভবনের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন
শিরোনাম
কচুয়ায় উৎসবমূখর পরিবেশে ইউপি নির্বাচনের মনোনয়নপত্র সংগ্রহ ও দাখিল চেয়ারম্যান পদে ৫৮ ও মেম্বার পদে ৫শত ১৫ জনের মনোনয়নপত্র সংগ্রহ কচুয়ায় পুকুর থেকে রিক্সাচালকের ভাসমান লাশ উদ্ধার কচুয়ার কড়ইয়া ইউনিয়নের তৃনমূলের প্রার্থী নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী আবদুস ছালাম সওদাগরের ব্যাপক গনসংযোগ ১৬মাস ১০ দিন পর কচুয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো: শাহজাহান পুনর্বহাল কচুয়ার নলুয়ায় ডক্টর মহীউদ্দীন খান আলমগীর এমপির বিভিন্ন উন্নয়ন কাজের উদ্বোধন কচুয়া উত্তর ইউনিয়নে ড.মহীউদ্দীন খন আলমগীর এমপি’র বিভিন্ন উন্নয়ন কাজের উদ্বোধন কচুয়ার শেখ মুজিবুর রহমান ডিগ্রি কলেজ এই অঞ্চলের শ্রেষ্ঠ বাতিঘর: ড.মহীউদ্দীন খন আলমগীর এমপি কচুয়ায় ড. মুনতাসীর মামুন ফাতেমা ট্রাস্টের অস্বচ্ছল পরিবারের মাঝে ভ্যান গাড়ি বিতরণ কচুয়ার দুর্গাপুরে ইউপি সদস্যের নির্বাচনী প্রচারনায় হামলা ॥আহত ৪ কচুয়ায় আল-জামিয়াতুল ইসলামিয়া দারুস সুন্নাহ মাদ্রাসার নতুন ভবনের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন

ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন পরিক্রমা(কচুয়া উত্তর ইউনিয়ন )

  • আপডেট : বুধবার, ৪ নভেম্বর, ২০১৫
  • ৮০৮ বার পড়া হয়েছে

1২০১৬ সালের ইউনিয়ন  পরিষদ নির্বাচনকে ঘিরে সম্ভাব্য চেয়ারম্যান ও মেম্বার প্রার্থীদের ব্যাপক প্রচার- প্রচারনা, গনসংযোগ ও মতবিনিময় লক্ষ্য করা গেছে। দলীয় মনোনয়নের লক্ষ্যে প্রার্থীরা ইতিমধ্যে দলীয় হাই কমান্ডের সাথে জোড় লবিং চালিয়ে যাচ্ছে।
কচুয়া উত্তর ইউনিয়ন
কচুয়া উত্তর ইউনিয়নে রয়েছে প্রখ্যাত আলেম কারী ্ইব্রাহীম (রঃ)পীর সাহেবের প্রতিষ্ঠিত জামেয়া ইসলামিয়া ইব্রাহিমিয়া উজানী মাদ্রাসা,ঐতিহ্যবাহী বখতার খা জামে মসজিদ ও ইতিহাস খ্যাত বেহুলার দিঘি, । ১১টি গ্রাম নিয়ে কচুয়া উত্তর ইউনিয়ন পরিষদ। গ্রামগুলোহচেছউজানী,তেতৈয়া,দারচর,খিড্ডা,বরুচড়,নাহারা,করইয়া,লতিফপুর,নোয়াগাও,নোয়দ্দা ও সিংআড্ডা ।এই ইউনিয়নে মোট ভোটার সংখ্যা ১৭ হাজার ২শত ৬৭ জন। পুরুষ ভোটার ৮ হাজার ৭শত ৮৭ জন ,মহিলা ৮ হাজার ৪শত ৮০ জন। । সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থীরা হচ্ছেন- বর্তমান চেয়ারম্যান আলহাজ্ব বাসেদুজ্জামান বাচ্চু সরকার , ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আঃ রব মোল্লা,সাবেক উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক প্রয়াত তাজুল ইসলাম বিএসসির অনুজ কাজী মোঃ জাহাঙ্গীর আলম,উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য কাজী জহিরুল ইসলাম টগর, , বর্তমান ইউপি সদস্য মজিবুর রহমান,ছাত্রলীগ নেতা তেতৈয়া গ্রামের মো: ফারুক হোসেন মোল্লা ,উপজেলা বিএনপি‘র সদস্য সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান কাজী মতিউর রহমান স্বপন,ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি কাজী জাকির হোসেন, ইউনিয়ন আওযামী লীগের সাধারন সম্পাদক সফিউল্যাহ ।সব মিলিয়ে বিএনপির ৪জন প্রার্থীর বিপরীতে আওয়ামী লীগের ৬ জন প্রার্থীর নাম শোনা যায়।
আলহাজ্ব বাসেদুজ্জামান বাচ্চু সরকার
তেতৈয়া গ্রামের অধিবাসী বাচ্চু সরকার উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সদস্য। আরিফুল ইসলাম কাজলের অকাল মৃত্যুর পর উপ নির্বাচনে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়। বাচ্চু সরকার বিভিন্ন সামাজিক সংঘঠনের সাথে সম্পৃক্ত। তিনি বলেন চেয়ারম্যান হিসাবে দায়িত্ব নেওয়ার পর আমি মানুষের সেবা করার মাধমে ইউনিয়ন পরিষদের কার্যক্রম গতিশীল করেছি । কারো নিকট থেকে আমি কোন সুবিধা গ্রহন করি নাই। সবসময় মানুষের কল্যানে কাজ করছি। ভাল কাজের কারনে সাধারন মানুষের অনুরোধে আমি পরবর্তী নির্বাচনে অংশ গ্রহন করব।
্্

আ ঃরব মোল্লা
তেতৈয়া গ্রামের  গ্রামের অধিবাসী ইউনিয়ন আওযামী লীগের সভাপতি আ ঃরব মোল্লা । তিনি প্রয়াত চেয়ারম্যান নাছির উদ্দিন মোল্লার সন্তান যিনি ৭৩-৮৮ পর্যন্ত সুনামের সাথে চেয়ারম্যান ছিলেন।১৯৬৫ সালে ছাত্রলীগের মাধ্যমে রাজনিতিতে প্রর্দাপন, পারিবারিক ভাবে তিনি আওয়ামী পরিবারের সন্তান। একপ্রতিক্রিয়া আঃ রাব মোল্লা জানান-তিনি তেতৈয়া উচ্চ্ বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও তেতৈয়া মোল্লা বাড়ির জামে মসজিদের সভাপতিসহ বিভিন্ন সামাজিক সাংস্কৃতিক সংঘঠনের সাথে জড়িত। তিনি মনে করেন চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলে এলাকার মাদক ব্যবহারের রোধ ও শিক্ষার হার বৃদ্ধিও  লক্ষ্যে কাজ করে যাবেন। এছাড়া রাস্তা ঘাট উন্নয়ন ,জলা তেতৈয়া বিলের সাথে সম্পৃক্ত খাল গুলো সংস্কার করে মাছের অভয় বা আরন্য সৃষ্টিতে অগ্রনি ভ’মিকা রাখবেন। তিনি আরো জানান গত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে মনোয়নপত্র সংগহ করে দলীয় সিদ্বান্ত অনুযায়ী মনোয়ন পত্র প্রত্যাহার করে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থীর পক্ষে কাজ করেছেন। তাই তিনি আসছে কচুয়া উত্তর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে দলীয় সর্মথক শতভাগ পাবেন সে আশাবাদ করছেন।

কাজী জহিরুল ইসলাম জাহাঙ্গীর
উজানী গ্রামের কাজী বাড়ির অধিবাসী সাবেক উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক প্রয়াত তাজুল ইসলাম বিএসসি ও  আরিফুল ইসলাম কাজলের ভাই কাজী জহিরুল ইসলাম জাহাঙ্গীর।  ব্যবসায়ী ও সমাজসেবক কাজী জহিরুল ইসলাম জাহাঙ্গীর আওয়ামী পরিবারের সন্তান । স্কুল জীবন থেকে ছাত্রলীগের মাধ্যমে রাজনীতিতে পদার্পন। তাঁর ভাই তাজুল ইসলাম বিএসসির জীবদ্দশায় এলাকার মানুষের উন্নয়নে তাঁর সাথে থেকে ছোটবেলা থেকেই মানুষের কল্যানে নিজেকে নিয়োজিত রেখেছেন। কাজী জাহাঙ্গীর জানান- স্থানীয় সরকারের ইউনিয়ন পরিষদ বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকারের উন্নয়ন কর্মকান্ড জনসম্মুখে উপাস্থাপনের জন্য তিনি চেয়ারম্যান হিসেবে নির্বাচনের প্রতিদ্বন্দিতা করার অভিপ্রায় ব্যক্ত করেছেন।
তিনি বলেন- আমার দু’ভাই অত্যান্ত সুনামের সাথে কচুয়া উত্তর ইউনিয়ন পরিষদের জননন্দিত চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। তাদের আমলে  এলাকার সার্বিক উন্নয়ন হয়েছে। আমি বিশ্বাস করি কচুয়া উত্তর ইউনিয়নের জনগন উন্নয়নের স্বার্থে আমাকে তাদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত করবে। আমি নির্বাচিত হলে এলাকার রাস্তাঘাট,ব্রীজ, কালভার্ট ও প্রতিটি ঘরে ঘরে নতুন গ্যাস সংযোগ প্রদান করব। একই সাথে মাদকমুক্ত একটি আলোকিত সমাজ গড়ার লক্ষ্যে সকলের সমন্বয়ে কাজ করে যাব।তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ড. মহীউদ্দিীন খান আলমগীর আমাকে দল থেকে মনোনয়ন দিবে।
কাজী জহিরুল ইসলাম টগর
উজানী গ্রামের কাজী বাড়ির অধিবাসী কাজী জহিরুল ইসলাম টগর উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সদস্য। তিনি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে প্রয়াত সাবেক এমপি অ্যাড. খন্দকার আউয়ালের হাত ধরে ছাত্রলীগের মাধ্যমে রাজনীতিতে পর্দাপন করেন। তিনি জানান- বিএনপি জমায়েত জোট  সরকারের আমলে দলের দু:সময়ে দলীয় লোকজনের পাশে ছিলাম।  উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক তাজুল ইসলাম বিএসসির সান্নিধ্যে থেকে মানুষের কল্যানে কাজ করেছি।মানুষের সেবা করতে চাই বলে নির্বাচন করতে চাই । দল থেকে নমিনেশন পেলে প্রার্থী হব।
মোঃ মজিবুর রহমান প্রধান
মোঃ মজিবুর রহমান প্রধান উজানী গ্রামের অধিবাসী। তিনি কচুয়া উত্তর ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ডের ইউপি মেম্বার। মোঃ মজিবুর রহমান উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাতা সাবেক এমপি খন্দকার অ্যাড.আউয়ালের হাত ধরে ছাত্রলীগের রাজনিতেত্বে প্রদার্পন করেন। তিনি জানান একটানা নয় বছর ওই ইউনিয়নের যুবলীগের সভাপতি ছিলেন। বর্তমানে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ন সাধারন সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। আওয়ামী রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ততা থাকার কারনে  মান্নান হত্যা মামলা সহ ৯টি মামলার বিভিন্ন সময়ে কারাবরণ করেছি। বিএনপি জামায়াতের সময়ে আওয়ামী লীগের দুর্দিনে এলাকায় থেকে দলকে সুসংগঠিত রেখেছি। গত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে মনোয়নপত্র সংগ্রহ করে দলের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ড.মহীউদ্দীন খান আলমগীরের নির্দেশক্রমে দলের স্বার্থে দলীয় সমর্থিত প্রার্থীকে সমর্থন জানিয়ে মনোয়নপত্র প্রত্যাহার করে দলীয় প্রার্থী আরিফুল ইসলাম কাজলকে চেয়ারম্যান নির্বাচিত করেছি। তিনি আরো বলেন- সবকিছু বিবেচনা করে আগামী নির্বাচনে দল থেকে আমি দলীয় প্রতীকে নির্বাচন করার ব্যাপারে শতভাগ আশাবাদী।

কাজী মতিউর রহমান স্বপন
উজানী গ্রামের কাজী বাড়ির অধিবাসী কাজী মতিউর রহমান স্বপন সাবেক দু’বার ইউপি চেয়রাম্যান। তিনি উপজেলা বিএনপির কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য। তিনি জানান- আমি প্রথম বার চেয়ারম্যান হিসেবে নির্বাচিত হয়ে এলাকার ব্যাপক উন্নয়ন করেছি। যার ফলে জনগন দ্বিতীয় বারের জন্যেই তাদের চেয়ারম্যান হিসেবে পূনরায় আমাকে নির্বাচিত করে। এলাকার মানুষের অনুরোধের পরিপ্রেক্ষিতে উন্নয়নের স্বার্থে জনগন আমাকে তৃতীয় বারের মতো দলমত চেয়ারম্যান হিসেবে নির্বাচিত করবে। তাই আমি নির্বাচন করব বলে আশা করছি।

কাজী জাকির হোসেন
উজানী কাজী বাড়ির অধিবাসী কাজী জাকির হোসেন আইনগিরি মাদ্রাসার প্রভাষক। তিনি কচুয়া উত্তর ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি। তিনি পরপর দুবার জাতীয়তাবাদী দলের সমর্থিত চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন। তিনি বলেন- তৃতীয় বারের মতো নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দিতা করব। দল থেকে মনোয়ন পাওয়ার আশাবাদী এবং যদি সুষ্ঠ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় তাহলে ইউনিয়ন বাসী আমাকে চেয়ারম্যান হিসেবে নির্বাচিত করবে।

মোঃ ফারুক হোসেন মোল্লা

তেতৈয়া মোল্লা বাড়ির অধিবাসী মোঃ ফারুক হোসেন মোল্লা ছাত্রলীগের একজন সক্রিয়
কর্মী হিসেবে রাজনীতিতে প্রদার্পন করেন।তিনি ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি,উপজেলা ছাত্রলীগের কার্যনির্বাহী সদস্য হিসাবে দায়িত্ব পালন করেছেন। কচুয়া উত্তর ইউনিয়নের মানুষ তরুন নেতৃত্ব দেখতে চায়।  আমি সবসময় এলাকার মানুষের সাথে থেকে তাদের মঙ্গলের জন্যে কাজ করছি।পশ্চাদমূখী এ ই্উনিয়নের অনেক সমস্যা । আমি পষিদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলে এলাকার রাস্তাঘাট,গুনগত শিক্ষা, মাদক মুক্ত সমাজ  গঠনে সবার কল্যানে কাজ করে যাব। সকলকে সাথে নিয়ে একটি সমন্বয় কমিটি গঠনের মাধ্যমে এলাক থেকে মাদক নিমূল,বাল্য বিবাহ ও যৌন হয়রানি রোধে কাজ করব।  তিনি গত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্ধনিদ্ধতা করার জন্যে কাউন্সিলর অংশগ্রহন করে। এবারও দলের নমিনেশন চাইব ,আশা করি দলীয় নমিনেশন আমার পক্ষে আসব।

মোঃ সফিউল্যাহ
নোয়াগাঁও অধিবাসী মোঃ সফিউল্যাহ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শে অনুপ্রানিত হয়ে ১৯৯৩ সালে সিংআড্ডা উচ্চ বিদ্যালয় ছাত্রলীগ শাখার সভাপতি হিসেবে নির্বাচিত হয়ে আওয়ামী রাজনীতিতে প্রদাপন করেন। ১৯৯৬ সালে ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। একটানা নয় বছর ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারন সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। বর্তমান ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি জানান- দলের পক্ষে কাজ করার কারনে ত্যাগী নেতা কর্মীগন আমাকে মূল্যায়ন করবে। তাই আমি  দলীয় মনোনয়ন পাবারব্যপারে আশাবাদী ।
পরবর্তী সংখ্যায় থাকছে কচুয়া পূর্ব সহদেবপুর  ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন পরিক্রমা

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায় মাল্টিকেয়ার