1. ashraful.shanto@gmail.com : Ashraful Talukder : Ashraful Talukder
  2. newstalukder@gmail.com : Alamgir Talukder : Alamgir Talukder
বৃহস্পতিবার, ০৬ মে ২০২১, ০৩:৫৬ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
কচুয়ায় ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে ৪টি বসতঘর পুড়ে ছাই কচুয়ায় সমালয় চাষাবাদ প্রকল্পে বোরো ধান কর্তন উদ্বোধন লকডাউনে কচুয়ার ঈদের মার্কেট,ধমকে গেছে ব্যবসা কচুয়া উত্তর ইউনিয়নের সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থী মাওলানা নাছির উদ্দিনের উদ্যোগে ইফতার মাহফিল কচুয়ায় বিভিন্ন মসজিদের খতিবদের সাথে ইঞ্জিনিয়ার আঃ মোতালেবের মতবিনিময় সভা কচুয়ার পাথৈর ইউপি চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান জুয়েল করোনা আক্রান্ত ॥সকলের নিকট দোয়া প্রার্থনা কচুয়ার মধুপুর তালুকদার বাড়ির হুমায়ুন কবির তালুকদার আর নেই দোকান-শপিংমল খুলবে ২৫ এপ্রিল থেকে কচুয়ায় মুক্তিযোদ্ধা ইঞ্জিনিয়ার আব্দুল মোতালেবের অসহায় কর্মহীনদের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ কচুয়ায় মুক্তিযোদ্ধার উপর হামলার অভিযোগ
শিরোনাম
কচুয়ায় ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে ৪টি বসতঘর পুড়ে ছাই কচুয়ায় সমালয় চাষাবাদ প্রকল্পে বোরো ধান কর্তন উদ্বোধন লকডাউনে কচুয়ার ঈদের মার্কেট,ধমকে গেছে ব্যবসা কচুয়া উত্তর ইউনিয়নের সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থী মাওলানা নাছির উদ্দিনের উদ্যোগে ইফতার মাহফিল কচুয়ায় বিভিন্ন মসজিদের খতিবদের সাথে ইঞ্জিনিয়ার আঃ মোতালেবের মতবিনিময় সভা কচুয়ার পাথৈর ইউপি চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান জুয়েল করোনা আক্রান্ত ॥সকলের নিকট দোয়া প্রার্থনা কচুয়ার মধুপুর তালুকদার বাড়ির হুমায়ুন কবির তালুকদার আর নেই দোকান-শপিংমল খুলবে ২৫ এপ্রিল থেকে কচুয়ায় মুক্তিযোদ্ধা ইঞ্জিনিয়ার আব্দুল মোতালেবের অসহায় কর্মহীনদের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ কচুয়ায় মুক্তিযোদ্ধার উপর হামলার অভিযোগ

গরুর ওপর নিষেধাজ্ঞা, উটশূন্য হচ্ছে ভারত

  • আপডেট : মঙ্গলবার, ২১ এপ্রিল, ২০১৫
  • ২৩৬ বার পড়া হয়েছে

কচুয়া বার্তাডটকম
নিজস্ব সংবাদদাতা
: ভারতে জোর আলোচনা চলছে, শিগগির এই অঞ্চল থেকে উটের আবাদ শেষ হয়ে যাবে। উট পালন ব্যবস্থা সহজ না হওয়া এবং গরুর গোসতের ওপর নিষেধাজ্ঞা থাকায় উট কমতে শুরু করেছে সেখানে।
২০১২ সালে ভারতের উট সামারিতে দেখা যায়, ২০০৭ সালের তুলনায় ২২ থেকে ৮৪ শতাংশ উট পালন কমে গেছে। ধারণা অনুযায়ী বর্তমানে ভারতে উট রয়েছে চার লাখ। পুরো ভারতের চেয়ে রাজস্থানে উটের আবাদ হয় ৩৭ থেকে ৮১ শতাংশ। এজন্য রাজস্থানকে বলা হয় উটের রাজধানী।
২০১২ সালের সামারিতে দেখা গেছে, রাজস্থানে উট ছিল ২৫ লাখ। সেখানে বর্তমানে ২ লাখ উট রয়েছে। এ সংখ্যা কমতির দিকেই যাচ্ছে দিন দিন।
সরকারি এ সামারি যদি মানা হয় তবে বলতেই হবে, ভারত থেকে উট বিলুপ্ত হতে চলেছে।
১৯৮৪ সালে ভারতের ন্যাশনাল রিসার্চ সেন্টার উটের দেখভালের জন্য একটি কমিটি করে। সেই কমিটির পরিচালক নুতন প্যাটেল বলেন, উটের এই বিলুপ্তি রোধ করতে না পারলে ভারত অনেক দিক থেকে ক্ষতির সম্মুখিন হবে।
উট কমে যাওয়ার আরেকটি কারণ রয়েছে। তা হলো, পাচারকারী একটি নেটওয়ার্ক এর পেছনে কাজ করছে। বাংলাদেশসহ মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশে ভারতীয় উটের ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। বেশি দাম পাওয়ায় এগুলো এখান থেকে অনায়াসে বাইরে চলে যাচ্ছে।
উটের এই ক্রমহ্রাস ঠেকাতে রাজস্থান সরকার একটি আইনও করে। উট পাচার করলে বা হত্যা করলে পাঁচ বছরের জেল দেওয়া হবে। রাজস্থানের কৃষি ও প্রাণী বিশেষজ্ঞ ভিলাল সিনাই বলেন, এই আইনটি উটের সুরক্ষার জন্যই করা হয়েছে। কিন্তু রাজস্থানের অধিকাংশ লোকজনই এই আইনের তোয়াক্কা করছে না।
হানুত সিং ঠাকুর নামের এক বাসিন্দা বলেন, যদি সরকারের এই হুকুম মানা হয়, তবে রাজস্থানে যারা কয়েক হাজার উট পালন করছে, তাদের কী হবে?
এই সঙ্কটের মোকাবিলায় ন্যাশনাল রিসার্চ সেন্টার একটি সমাধান দিয়েছে, সেটা হলো এখন থেকে বিভিন্ন পণ্যের মতো ব্যাপকভাবে উটের দুধ রপ্তানি করা হবে।
কিন্তু এই পদ্ধতি মরুভূমির জাহাজ খ্যাত উটের আবাদ বৃদ্ধি করে কৃষকদের জন্য ফায়দা বয়ে আনবে তো? তা নিয়েও শুরু হয়েছে জোর গুঞ্জন।
সূত্র : বিবিসি উর্দুgoat goat

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায় মাল্টিকেয়ার